Sale!

প্রবৃত্তির দাসত্ব করতে করতে পাপে ভরেছে চিত্ত হারিয়েছি পথ, কোন নায়ে রাখব পা কোন পথে গেলে পাবো মুক্তির দেখা স্রষ্টার সৃষ্টির সেরা হয়েও হারিয়েছি মনুষ্যত্ব। হ্যাঁ কবি দাউদুল ইসলাম যথার্থই বলেছেন। মনের খেয়াল খুশি মত চলাই প্রবৃত্তির দাসত্ব। পৃথিবীর সৌন্দর্য, মনোমুগ্ধকর পরিবেশে মুগ্ধতা এবং নিরর্থক কাজ-কর্মের প্রতি আসক্তি তৈরির মাধ্যমে প্রবৃত্তি মানুষকে প্রতারিত করে থাকে। প্রবৃত্তির মুখাপেক্ষী হলে মানুষের মধ্যে মনুষ্যত্ব থাকে না। নিয়ম-কানুন, ধর্ম-কর্ম বলতে কোনো কিছুর অস্তিত্ব প্রবৃত্তিপূজারির মধ্যে অবশিষ্ট থাকে না। এজন্য প্রবৃত্তির দাসত্ব মানুষের বড় শত্রু। বুসতি রহ. বলেন, ‘প্রবৃত্তিকে তোমার অধীন করো, অন্যথায় প্রবৃত্তিই তোমাকে তার অধীন করে ফেলবে।’ কুপ্রবৃত্তির অনুসরণ কল্যাণকে বাধাগ্রস্থ করে, বিবেককে করে প্রান্তিকতার শিকার। কেননা, তা প্রসব করে নোংরা চরিত্র, প্রকাশ করে লাঞ্ছনাদায়ক কর্মকাণ্ড, মানবতার আচ্ছাদনকে করে কলঙ্কিত এবং অনিষ্টতার প্রবেশদারকে করে অবারিত। প্রবৃত্তি মানুষের সবচেয়ে বড় শত্রু। যত শত্রুর বিরুদ্ধে মানুষকে সংগ্রাম যার⎯করতে হয়, যুদ্ধ করতে হয়, তার মধ্যে প্রবৃত্তি সবচেয়ে কঠিন শত্রু বিরুদ্ধে যুদ্ধ করা অপরিহার্য দায়িত্ব। কিন্তু কীভাবে করবেন সে যুদ্ধ? আরবের পাঠকনন্দিত লেখক শাইখ সালেহ আল-মুনাজ্জিদ ইতিবাউল হাওয়া ও শাহওয়াত গ্রন্থদ্বয়ে তুলে ধরেছেন সে যুদ্ধের বিভিন্ন কৌশল। সুতরাং প্রবৃত্তির সুষ্ঠু পরিচালনার জন্য পড়ুন-প্রবৃত্তির দাসত্ব।

আত্নউন্নয়ন প্যাকেজ।
#প্রবৃত্তির দাসত্ব
#জীবনের সফর
#জীবন গড়ার কথামালা
তিনটি বইয়ের বিক্রয় মূল্য ৬০০৳
ডেলিভারি চার্জ: ৬০৳ ঢাকার ভেতর এবং বাইরে ১০০ ৳
অর্ডার করতে কমেন্ট করুন, ইনবক্স করুন অথবা কল করুন এই নম্বরে—০১৬১১১৫২৫২১ / ০১৯১১১৫২৫২১
১)প্রবৃত্তির দাসত্ব
প্রবৃত্তির দাসত্ব করতে করতে পাপে ভরেছে চিত্ত হারিয়েছি পথ, কোন নায়ে রাখব পা কোন পথে গেলে পাবো মুক্তির দেখা স্রষ্টার সৃষ্টির সেরা হয়েও হারিয়েছি মনুষ্যত্ব। হ্যাঁ কবি দাউদুল ইসলাম যথার্থই বলেছেন। মনের খেয়াল খুশি মত চলাই প্রবৃত্তির দাসত্ব। পৃথিবীর সৌন্দর্য, মনোমুগ্ধকর পরিবেশে মুগ্ধতা এবং নিরর্থক কাজ-কর্মের প্রতি আসক্তি তৈরির মাধ্যমে প্রবৃত্তি মানুষকে প্রতারিত করে থাকে। প্রবৃত্তির মুখাপেক্ষী হলে মানুষের মধ্যে মনুষ্যত্ব থাকে না। নিয়ম-কানুন, ধর্ম-কর্ম বলতে কোনো কিছুর অস্তিত্ব প্রবৃত্তিপূজারির মধ্যে অবশিষ্ট থাকে না। এজন্য প্রবৃত্তির দাসত্ব মানুষের বড় শত্রু। বুসতি রহ. বলেন, ‘প্রবৃত্তিকে তোমার অধীন করো, অন্যথায় প্রবৃত্তিই তোমাকে তার অধীন করে ফেলবে।’ কুপ্রবৃত্তির অনুসরণ কল্যাণকে বাধাগ্রস্থ করে, বিবেককে করে প্রান্তিকতার শিকার। কেননা, তা প্রসব করে নোংরা চরিত্র, প্রকাশ করে লাঞ্ছনাদায়ক কর্মকাণ্ড, মানবতার আচ্ছাদনকে করে কলঙ্কিত এবং অনিষ্টতার প্রবেশদারকে করে অবারিত। প্রবৃত্তি মানুষের সবচেয়ে বড় শত্রু। যত শত্রুর বিরুদ্ধে মানুষকে সংগ্রাম যার⎯করতে হয়, যুদ্ধ করতে হয়, তার মধ্যে প্রবৃত্তি সবচেয়ে কঠিন শত্রু বিরুদ্ধে যুদ্ধ করা অপরিহার্য দায়িত্ব। কিন্তু কীভাবে করবেন সে যুদ্ধ? আরবের পাঠকনন্দিত লেখক শাইখ সালেহ আল-মুনাজ্জিদ ইতিবাউল হাওয়া ও শাহওয়াত গ্রন্থদ্বয়ে তুলে ধরেছেন সে যুদ্ধের বিভিন্ন কৌশল। সুতরাং প্রবৃত্তির সুষ্ঠু পরিচালনার জন্য পড়ুন-প্রবৃত্তির দাসত্ব।
বই : প্রবৃত্তির দাসত্ব
লেখক : শাইখ সালেহ আল-মুনাজ্জিদ
অনুবাদক : আবদুন নুর সিরাজি
সম্পাদনা : সালমান মোহাম্মদ
পৃষ্ঠা : ১১২
মুদ্রিত মূল্য : ২২০৳
বিক্রি মূল্য : ১৬৫৳(২৫%ছাড়ে)
বইয়ের ধরন : হার্ডকভার
ডেলিভারি চার্জ: ৬০৳ ঢাকার ভেতর এবং বাইরে ১০০৳
বইটি কিনতে ইনবক্স করুন অথবা কল করুন ০১৬১১১৫২৫২১ / ০১৯১১১৫২৫২১
২) জীবনের সফর
তথ্য প্রযুক্তিনির্ভর এই সভ্যতায় আমাদের জীবনযাত্রা, আমাদের বেড়ে ওঠা। জীবন পরিচালনায় আমরা পশ্চিমা সংস্কৃতি, পশ্চিমা মানসিকতা, ধর্ম ও নৈতিকতা বিবর্জিত পশ্চিমা জীবনাদর্শসহ দুনিয়ার বিভিন্ন মোহে পড়ে ভুলে গেছি আমাদের জীবনের উদ্দেশ্য ও গন্তব্য। আমাদের জ্ঞান, প্রজ্ঞা, বিবেক রয়েছে বলেই আমরা অন্যান্য প্রাণীর চেয়ে আলাদা, অন্য সৃষ্টিদের চেয়ে আমরা শ্রেষ্ঠ। আমরা মানুষ। মানুষ বলেই আমরা ন্যায়-অন্যায় বুঝি। মানুষ বলেই আমরা খুন-ধর্ষণের বিচার চাই। সামাজিক নিরাপত্তা, বৈষম্যহীন সমাজব্যবস্থা চাই। স্বাধীনতার দাবিতে সোচ্চার হই। রাস্তায় কিছু কুকুর একত্র হয়ে নিপীড়ন বিরোধী সমাবেশ করছে, এরকম কি কখনো হয়েছে? আমরা যে কুকুর বা ভেড়ার মতো শুধুই একটা প্রাণী না, এটা বুঝতে পারছেন? আমরা অনন্য। আমরা মানুষ। আর মানুষ মাত্রই আপনাকে তিনটি মৌলিক ⎯প্রশ্ন নিজেকে করতে হবে ১. কোথা থেকে আমার এই অস্তিত্ব? ২. আমার এই অস্তিত্বের উদ্দেশ্য কী? ৩. আমার গন্তব্য কোথায়? বক্ষ্যমাণ গ্রন্থে আরবের বিখ্যাত লেখক ও পৃথিবীখ্যাত দায়ি উল্লিখিত তিনটি প্রশ্নের উত্তর সুন্দর ভাষা প্রয়োগে, আকর্ষণীয় ভঙ্গিতে তুলে ধরেছেন বিভিন্ন প্রবন্ধের মাধ্যমে। উল্লিখিত তিনটি প্রশ্নের উত্তর জানতে পড়ুন ‘জীবনের সফর’। ‘জীবনের সফর’ বলে দেবে আপনার এই তিনটি প্রশ্নের উত্তর…
বই : জীবনের সফর
লেখক : ড. মুহাম্মদ ইবনে আবদুর রহমান আরিফি
অনুবাদক : মুস্তাজাব খলিল
পৃষ্ঠা : ২২৪
মুদ্রিত মূল্য : ৪২০৳
বিক্রয় মূল্য : ৩১৫৳(২৫%ছাড়ে)
বইয়ের ধরন: হার্ড কভার
ডেলিভারি চার্জ: ৬০৳ ঢাকার ভেতর এবং বাইরে ১০০৳
বইটি কিনতে ইনবক্স করুন অথবা কল করুন ০১৬১১১৫২৫২১ / ০১৯১১১৫২৫২১
৩) জীবন গড়ার কথামালা
গ্রীষ্মের তাপদাহে ফেটে চৌচির হওয়া জমি যেমন আকাশ থেকে নেমে আসা শীতল বারিধারার প্রতীক্ষায় প্রহর গোনে; তেমনি মানুষের অন্তরও অনেক সময় গুনাহের পঙ্কিলতায় আবিল হয়ে বড় কোনো ব্যক্তিত্ত্বের আলোকোজ্জ্বল নসিহতের সন্ধানে থাকে। যা তার তপ্ত হৃদয় শীতল করবে। ভাঙা মন জোড়া লাগাবে। শয়তান আর নসফের জালে আটকা পড়া মানসকে করবে শৃঙ্খলমুক্ত।নহিহতমূলক আলাপন উলামাগণ অনেক সময় স্বতন্ত্র গ্রন্থে করেন, অনেক সময় ভিন্ন বিষয়ের ভেতর দিয়ে তা ছড়িয়েছিটিয়ে রাখেন। সচেতন পাঠককে সেখান থেকে সযত্নে তা কুড়িয়ে নিতে হয়। কিন্তু একবিষয়ের রচনার পাতা থেকে অন্য বিষয়কে গভীর দৃষ্টি হেনে দক্ষ ডুবুরির মতো সমুদ্রের তলদেশ থেকে মনি-মুক্তা আহরণের ন্যায় তুলে আনতে কতজনই বা পারে? কয়জন পাঠকেরই বা থাকে এমন সুদূরপ্রসারী দৃষ্টি ও পাঠ বিচক্ষণতা? এসব কথা বিবেচনা করে দক্ষ পাঠক অনেক সময় নিজের আহরিত নসিহতের সেই টুকরোগুলো সুবিন্যস্ত করে অন্যদের সামনে তুলে ধরার প্রয়াস পান।আমাদের হাতে থাকা বইটিও এমন একটি সংকলন। আরবের প্রখ্যাত আলিম ও সুলেখক সালেহ আহমাদ শামি ফতোয়া ইবনে তাইমিয়া অধ্যয়নকালে নসিহতমূলক কথাগুলো আলাদা করেন এবং পরে সেগুলোকে মলাটবদ্ধ করে পাঠক সমীপে মাওয়ায়িজে ইবনে তাইমিয়া নামে পেশ করেন। সেই বইয়েরই বাংলা ভাষান্তরিত রূপ হলো- জীবন গড়ার কথামালা।
লেখক :সালেহ আহমেদ শামি
অনুবাদক : জুনায়েদ জুলফিকার
সম্পাদনা : আবদুল্লাহ আল মাসউদ
ভাষা সম্পাদনা ও বানান : আহসান ইলিয়াস ও সালমান মোহাম্মদ
পৃষ্ঠা : ৮০
মুদ্রিত মূল্য : ১৮০৳
বিক্রয় মূল্য : ১২৬৳(৩০%ছাড়ে)
বইয়ের ধরন: পেপারব্যাক)
ঢাকায় ডেলিভারি চার্জ : ৬০৳ ঢাকার ভেতর এবং বাইরে ১০০৳
বইটি কিনতে ইনবক্স করুন অথবা কল করুন ০১৬১১১৫২৫২১ / ০১৯১১১৫২৫২১

Reviews

There are no reviews yet.

Be the first to review “”

Your email address will not be published. Required fields are marked *